Saturday, October 22, 2022

উচ্চ রক্তচাপ থাকলে যা আপনাকে মানতেই হবে

উচ্চ রক্তচাপ আজকাল পরিচিত সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এর ফলে কিডনি জটিলতা, হৃদরোগের ঝুঁকি বাড়ে। এ কারণে নিয়মিত উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রনে রাখা জরুরি।

উচ্চ রক্তচাপ কমাতে জীবনযাপন পদ্ধতির পাশাপাশি খাদ্যাভাসেও নিয়ন্ত্রন রাখা দরকার।উচ্চ রক্তচাপ থাকলে প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় চর্বিহীন প্রোটিন, শিম, শস্য জাতীয় খাবার, কম ফ্যাটযুক্ত দুগ্ধজাত খাবার এবং ফলমূল, শাকসবজি রাখা প্রয়োজন। সেই সঙ্গে কিছু খাবার পরিহার করাও আবশ্যক।

আচার : আচার যেকোন খাবারের স্বাদ কয়েকগুণ বাড়িয়ে দেয়। কিন্তু এতে অনেক বেশি লবণ থাকে যা উচ্চ রক্তচাপের রোগীদের ঝুঁকির কারণ। তাই এসব রোগীদের আচার না খাওয়াই ভালো।

পনির : পনিরে অনেক বেশি সোডিয়াম থাকে যা লবণের প্রধান উপাদান। কোন কোন পনিরে প্রতি আউন্সে ৩০০ গ্রাম পর্যন্ত সোডিয়াম থাকতে পারে।

বিকন : বিকনে অনেক বেশি কোলেস্টেরল, ফ্যাট ও লবণ থাকে। তাই রক্তচাপ স্বাভাবিক রাখতে অবশ্যই এই খাবারটি এড়িয়ে চলবেন।

মিষ্টি পানীয় : মিষ্টি পানীয় ওজন ও রক্তচাপ বৃদ্ধির জন্য দায়ী। বিশেষজ্ঞরা বলেন, যারা মিষ্টি পানীয় পান করেন তারা অনেক বেশি উচ্চ রক্তচাপের ঝুঁকিতে থাকেন।

ফ্রেঞ্চ ফ্রাই : রেস্টুরেন্টে যেসব ফ্রেঞ্চ ফ্রাই পাওয়া যায় তাতে অনেক বেশি লবণ থাকে। একারণে শরীর থেকে অপ্রয়োজনীয় তরল পদার্থ বের হয়ে যাওয়ার ক্ষমতা কমে যায় এবং রক্তচাপ বেড়ে যায়।

সস : সসে অনেক বেশি লবণজাতীয় মসলা ব্যবহার করা হয়। এক চামচ সসে ১৯০ গ্রাম পর্যন্ত সোডিয়াম থাকতে পারে। এটি যখন তেলে ভাজা খাবারের সঙ্গে খাওয়া হয় তখন লবণ গ্রহণের পরিমাণ অনেক বেড়ে যায়।

মিনারেল ওয়াটার : বোতলজাত মিনারেল ওয়াটারে প্রতি লিটারে ২০০ মিলিগ্রাম পর্যন্ত সোডিয়াম থাকতে পারে যা উচ্চ রক্তচাপ রোগীদের অবশ্যই এড়িয়ে চলা উচিত।

Latest news
Related news