Wednesday, October 19, 2022

পাঁচ নিয়ম মানলেই ডায়েট করার সময়ে খিদে কম পাবে

বাড়তি ওজন মানেই বাড়তি চিন্তা। কারণ বাড়তি মেদ মানেই বিভিন্ন কঠিন রোগকে নিজের দেহে বাসা বাঁধার জন্য আমন্ত্রণ জানানো। তাইতো ইতোমধ্যে অনেকেই ওজন ঝরাতে ডায়েট শুরু করেছেন। কিন্তু দেখা গেলো, ডায়েট করার পরও কিছুতেই মেদ ঝরছে না।

তার মানে কি, আপনি ডায়েট করার সময়ে ঠিক নিয়ম মেনে চলছেন না? নাকি ডায়েটের মাঝেই খিদে পেলে মুখে পুড়ছেন রকমারি স্ন্যাকস? অনেকেই ভাবেন পরিমাণে কম খেলেই বুঝি রোগা হওয়া যায়।

এমন ধারণা ভুল। ডায়েটের সময়ে নির্দিষ্ট সময় অন্তর নির্দিষ্ট পরিমাণ খাবার খেতে হয়। ডায়েট শুরুর দিকে খিদে পাওয়া খুবই স্বাভাবিক। খিদে পেলে কীভাবে তা সামাল দেবেন, জানতে হবে সেই টোটকাই।

চলুন তবে জেনে নেয়া যাক ডায়েটের সময়ে কীভাবে খিদে কমাবেন-খিদে পেলে বেশি করে পানি খেয়ে নিন। এতে খিদে অনেকটাই কমে। পানি খেলে পেট ভরে যায়।

যেকোনো ডায়েট করার সময়ে পর্যাপ্ত পানি খাওয়ার পরামর্শ দেন পুষ্টিবিদরা। এতে শরীর থেকে টক্সিন পদার্থগুলো বেরিয়ে যায়। চাইলে ডিটক্স ওয়াটারও খেতে পারেন।

ডায়েট করার সময়ে ফাইবার জাতীয় খাবার বেশি করে খান। এই প্রকার খাবার খেলে পেট অনেকক্ষণ ভরা থাকে। খিদে কম পায়। ওটমিল, বার্লি, ফল ও শাক-সবজিতে থাকে ফাইবার। খেতে পারেন মটর, শিম ও বিভিন্ন প্রকার ডালও।

খাওয়ার সময়ে তাড়াহুড়ো না করাই ভালো। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গিয়েছে, ধীরে ধীরে চিবিয়ে খাবার খেলে পেট অনেকক্ষণ ভরা থাকে। খিদেও কম পায়।

ওজন ঝরানোর ক্ষেত্রে শরীরচর্চাও ভীষণ জরুরি। ডায়েটের পাশাপাশি শরীরচর্চা করলেও বারবার খিদে পায় না। এক্ষেত্রে অ্যরোবিক করলে সবচেয়ে ভালো ফল পাওয়া যায়।

মানসিকভাবে চাঙ্গা থাকতে হবে। ডায়েট শুরু করলে অনেকেই মানসিক ভাবে ভেঙে পড়েন। ফলে শরীরে কর্টিসল নামক স্ট্রেস হরমোনের ক্ষরণ বেড়ে যায়। এ করম হলে কিন্তু আমরা অজান্তেই বেশি পরিমাণে খেয়ে ফেলি। ওজন কিছুতেই কমে না। ডায়েট শুরু করার আগে তাই মানসিকভাবে প্রস্তুত হন। নইলে শত চেষ্টাতেও ওজন কমবে না।

Latest news
Related news