Wednesday, October 19, 2022

নিজ দেশের জন্য সাহায্য চাইলেন শ্রীলঙ্কান গায়িকা

অর্থনৈতিক সংকটে বিধ্বস্ত শ্রীলঙ্কা। স্মরণকালের সবচেয়ে ভয়াবহ সময় পার করছে দেশটি। বৈদেশিক ঋণের বোঝা ও খাদ্য-জ্বালানি সংকটের পাশপাশি দেশটিতে দেখা দিয়েছে রাজনৈতিক অস্থিরতা।

স্বাধীনতার পর এমন অর্থনৈতিক বিপর্যয় দেখতে হয়নি দ্বীপরাষ্ট্রটিকে। দুই কোটি জনসংখ্যার এই দেশটিতে নিত্যপণ্যের আকাশছোঁয়া দামে বর্তমানেবিপর্যয়ে বিপর্যস্ত জনজীবন।

আকাশছোঁয়া মূল্যস্ফীতি, দুর্বল সরকারি অর্থব্যবস্থা এবং করোনার কারণে ক্ষতিগ্রস্ত অর্থনীতি দেশটির এই বিপর্যয়ের অন্যতম কারণ। সবমিলিয়ে চরম অস্থিরতা বিরাজ করছে লঙ্কানদের দেশে।

দেশের এ অবস্থায় শ্রীলঙ্কার জন্য সাহায্য চাইলেন সে দেশের জনপ্রিয় গায়িকা ইয়োহানি ডি’সিলভা। তার সঙ্গীত জীবন ইউটিউবার হিসেবে শুরু হয়।

কিন্তু গত বছরের শেষ দিকে ‘মানিকে মাগে হিতে’ গানটি গেয়ে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ব্যাপক পরিচিতি পান তিনি ।

তার গাওয়া মানিকে মাগে হিথে গানটি শ্রীলঙ্কা, ভারত ও বাংলাদেশে অল্প সময়ে ব্যপক জনপ্রিয়তা লাভ করে। ফেসবুক পেজে একটি ভিডিও বার্তা ও স্ট্যাটাসে সাহায্যের আহ্বান জানান ইয়োহানি।

তিনি বলেন, ‘আশা করি পৃথিবীর সব জায়গা থেকে আমার ভক্তরা গানের বাইরেও মনের কিছু কথা বলার সুযোগ দেবেন।

আমি কয়েক সপ্তাহ যাবত ভারতে আছি, কিন্তু আমার মন পড়ে আছে শ্রীলঙ্কায়। আমার দেশ ও দেশের মানুষ ইতিহাসের সবচেয়ে বাজে অর্থনৈতিক সংকটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে।

মানুষের কষ্ট দেখে ও তাদের পাশে থাকতে না পেরে বুকটা ভেঙে যাচ্ছে।’নিজ দেশকে স্বর্গের মতো দাবি করে ইয়োহানি লিখেছেন, ‘গত কয়েক দিনে আপনারা হয়তো শ্রীলঙ্কা থেকে অনেক খারাপ খবর পাচ্ছেন, তবে আমি হলফ করে বলতে পারি, আমার বাড়ি এ দ্বীপরাষ্ট্র সত্যিই স্বর্গের মতো, যেখানে রয়েছে চমৎকার সব মানুষ, যাদের অনেকেই আমার বন্ধু ও ভক্ত।

শিল্পী ও ব্যক্তি হিসেবে আমি সবসময়ই অরাজনৈতিক ছিলাম। আমি ও আমার দল কারও কোনো অনুগ্রহ বা সহায়তা গ্রহণে সতর্ক।

ভবিষ্যতেও এ নীতি আমি বজায় রাখব, তবে আমার দেশের একজন প্রতিনিধি হিসেবে একটি আন্তর্জাতিক প্ল্যাটফর্মে আমি নীরবতা ভাঙার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

একই সঙ্গে আমাদের দেশের গুরুতর পরিস্থিতি বিবেচনা করে দেশের মানুষের পক্ষে কথা বলতে চেয়েছি।’ইয়োহানি আরও বলেন, ‘আমি সবসময় বিশ্বাস করি যে, কথার চেয়ে কাজ উত্তম।

আমি শ্রীলঙ্কার সতীর্থ শিল্পীদের সঙ্গে একটি প্রকল্পে কাজ করছি। তাদের অনুভূতিও আমার মতো। তারাও আমার মতো দেশের মানুষের জন্য অবদান রাখতে চায়।

আমি আশা করি ভারত ও বিশ্বজুড়ে আমার এ উদ্যোগকে সমর্থন করবেন ও শ্রীলঙ্কার পাশে দাঁড়াবেন। আপনাদের কাছে সমর্থন চাওয়ার জন্য আমি দুঃখিত, কিন্তু শ্রীলঙ্কার মানুষের এই কঠিন সময়ে এ সহায়তা দরকার।’

এর আগেও অর্থনৈতিক সংকটে বিধ্বস্ত শ্রীলঙ্কার জন্য নেটমাধ্যমে শোক প্রকাশ করছেন হেলা জয়াবর্ধনে, কুমার সাঙ্গাকারা, জ্যাকুলিন ফার্নান্দেজ এর মতো বড় তারকরা ।

Latest news
Related news