মেসি থেকে রোনাল্ডো, বিশ্বকাপ যাদের বিদায় জানালো

Share

কাতার আসরে  আর্জেন্টিনার হয়ে শিরোপা জিতে  সম্ভাব্য সেরা উপায়ে লিওনেল মেসি তার বিশ্বকাপ ক্যারিয়ারকে বিদায় জানিয়েছেন। ফুটবলের সর্বোচ্চ আসর থেকে বিদায় নেবার এর থেকে সুন্দর কোন উপায় হতে পারেনা। দোহার লুইসাইল আইকনিক স্টেডিয়ামে পেনাল্টিতে ফ্রান্সকে ৪-২ গোলে পরাজিত করে শিরোপা জেতার কৃতিত্ব দেখায় মেসির নেতৃত্বাধীন আর্জেন্টিনা। ফাইনালে মেসি করেছেন দুই গোল। ৩৫ বছর বয়সী মেসি বিশ্বকাপের সেরা খেলোয়াড় হিসেবে গোল্ডেন বল ট্রফি জয় করেছেন। কিলিয়ান এমবাপ্পের চেয়ে মাত্র এক গোল পিছিয়ে সর্বমোট সাত গোল করেছেন কাতারে। নাহলে হয়তো গোল্ডেন বুটও যৌথভাবে মেসির দখলে যেত। কিন্তু এর একবারে বিপরীত চিত্র ছিল পর্তুগীজ সুপারস্টার ও মেসির দীর্ঘদিনের প্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিস্টিয়ানো রোনাল্ডোর। মেসিকে সাথে নিয়ে একটি প্রজন্মের ফুটবলকে রোনাল্ডো যেভাবে সামনে এগিয়ে নিয়ে গেছেন তার জন্য বিশ্বকাপ থেকে এভাবে বিদায়টা মোটেই সুখকর ছিলনা। ৩৭ বছর বয়সী রোনাল্ডো বর্তমানে ক্লাববিহীন রয়েছে। পর্তুগালের দীর্ঘদিনের অধিনায়ক হিসেবে তাকে বিশ্বকাপের শেষ ম্যাচে বদলী বেঞ্চে বসে থাকতে হয়েছে। কোয়ার্টার ফাইনালে মরক্কোর কাছে ১-০ গোলে পরাজয়ের পর রোনাল্ডো মাথা নীচ করে কাঁদতে কাঁদতে মাঠত্যাগ করেন। এর মাধ্যমেই তার বিশ্বকাপ শিরোপা জয়ের স্বপ্ন শেষ হয়ে গেছে। পরে ইনস্ট্রাগ্রামে তিনি পোস্ট দিয়েছেন, ‘যে পাঁচটি বিশ্বকাপ আমি খেলেছি আমার সাথে বিশ্বের সেরা খেলোয়াড়ই ছিল। আমাকে লক্ষ লক্ষ পর্তুগীজ সমর্থন করেছে। আমি নিজের সেরাটা দিতে সবসময়ই চেষ্টা করেছি। আমি মাঠে সবকিছু রেখে যাচ্ছি। আমি কখনো যুদ্ধ শেষ করবো না ও কখনো স্বপ্ন দেখা শেষ করবো না।’ ব্রাজিলিয়ান সুপারস্টার নেইমারকে নিয়ে গুঞ্জন রয়েছে, কাতারই হয়তোবা তার শেষ বিশ্বকাপ হতে যাচ্ছে। ক্রোয়েশিয়ার কাছে কোয়ার্টার ফাইনালে পেনাল্টিতে হেরে ব্রাজিলের বিদায়ের পর মানসিক ভাবে একেবারেই ভেঙ্গে পড়েছিলেন নেইমার। তখনই তিনি ইঙ্গিত দিয়েছিলেন হয়তো জাতীয় দলের জার্সি গায়ে তিনি শেষ ম্যাচটি খেলে ফেলেছেন। ইনজুরির কারণে কাতারে  তিনি দুটি ম্যাচ খেলতে পারেননি। কিন্তু ফিরে এসে সেলেসাওদের হয়ে পেলের সর্বকালের সর্বোচ্চ ৭৭ গোলের রেকর্ড স্পর্শ করেন। ৩০ বছর বয়সী নেইমার পিএসজির সতীর্থ মেসির বয়সে বেশ খানিকটা ছোট বিধায় তার সামনে আরো একটি বিশ্বকাপ খেলার সুযোগ থেকেই যাচ্ছে। ব্রাজিলের জীবন্ত কিংবদন্তী পেলে নিজেও নেইমারকে খেলা চালিয়ে যাবার আহবান জানিয়েছেন। ২০১৮ ব্যালন ডি’অর বিজয়ী লুকাস মড্রিচ ৩৭ বছর বয়সে বিশ্বকাপের নিজের শেষ ম্যাচ খেলেছেন। রিয়াল মাদ্রিদের অভিজ্ঞ এই মিডপিল্ডার বিশ্বকাপে ক্রোয়েশিয়াকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছে। ক্রোয়েশিয়া টানা দ্বিতীয়বারের মত সেমিফাইনালে উঠেছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আর্জেন্টিনার কাছে পরাজিত হয়ে তাদের তৃতীয় স্থান নির্ধারনী ম্যাচ খেলতে হয়। সেখানে মরক্কোকে হারিয়ে ক্রোয়েশিয়া তৃতীয় স্থান নিয়ে বাড়ি ফিরেছে। এই ম্যাচের পর মড্রিচ বলেছেন ২০২৩ সালের নেশন্স লিগে তিনি দলকে শিরোপা উপহার দিতে চান। ৩৪ বছর বয়সী পোল্যান্ডের রবার্ট লিওয়ানদোস্কি শেষ পর্যন্ত তার বর্ণাঢ্য ক্যারিয়ারে বিশ্বকাপে গোলের দেখা পেয়েছেন। সৌদি আরবের বিপক্ষে গ্রুপ পর্বে তিনি বিশ্বকাপের প্রথম গোল করেন। কিন্তু বার্সেলোনার এই ফরোয়ার্ড এখনো নিশ্চিত নন আরো একটি বিশ্বকাপ খেলা তার পক্ষে সম্ভব হবে কিনা। শেষ ষোলতে পোল্যান্ড ফ্রান্সের কাছে পরাজিত হয়ে বিশ্বকাপ থেকে বিদায় নেয়। লেভা বলেছেন, ‘শারিরীক ভাবে আমি ফিট রয়েছি। কিন্তু ফুটবলের বাইরেও অনেক কিছু চিন্তা করতে হয়। এই মুহূর্তে তাই কোন কিছু নির্দিষ্ট ভাবে বলাটা কঠিন।’ উরুগুয়ের আক্রমনভাগকে দীর্ঘদিন নেতৃত্ব দেয়া লুইস সুয়ারেজ ও এডিনসন কাভানির এটাই শেষ বিশ্বকাপ ছিল। যদিও কাতারে এই দুজনের কেউই গোল পাননি। ৩৫ বছর বয়সী সুয়ারেজ গ্রুপ পর্ব থেকে উরুগুয়ের বিদায়ে দারুন হতাশ হয়েছেন। জার্মানীর সাবেক বিশ্বকাপ জয়ী তারকা ৩৩ বছর বয়সী থমাস মুলারও শেষ বিশ্বকাপ খেলে ফেলেছেন। কাতারে তিনি গোল করতে ব্যর্থ হয়েছে। একইসাথে জার্মানীরা টানা দ্বিতীয়বারের মত গ্রুপ পর্ব থেকেই বিদায় নিয়েছে। বেলজিয়ামের তারকা এডেন হ্যাজার্ড গ্রুপ পর্ব থেকে বেলজিয়ামের বিদায়ে আন্তর্জাতিক ফুটবল থেকে অবসরের ঘোষনা দিয়েছেন। রিয়াল মাদ্রিদের এই ফরোয়ার্ড বেলজিয়ামের স্বর্ণালী প্রজন্মকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। ২০১৮ সালে রাশিয়া বিশ্বকাপে উজ্জীবিত বেলজিয়াম সেমিফাইনালে খেলেছিল। ৩৩ বছর বয়সী ওয়েলস তারকা গ্যারেথ বেল বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন। তবে কাতারে নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি। বর্তমান ব্যালন ডি’অর বিজয়ী করিম বেনজেমা ইনজুরির কারণে কাতারে খেলতে পারেননি। ইতোমধ্যেই তার দল ফ্রান্স ফাইনালে পরাজিত হওয়ায় ৩৪ বছর বয়সী এই রিয়াল মাদ্রিদ তারকা আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারকে বিদায় জানিয়েছেন।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *