জানেন সঙ্গমকালে কোন শব্দ পার্টনারের উত্তেজনা বাড়িয়ে তোলে?

Share

জীবনের ওই বিশেষ মুহূর্তগুলোতে অতিরিক্ত এদিক-সেদিকের কথা বলতে চান, এমন মানুষ খুঁজে পাওয়া কঠিন। তবে এমন কিছু শব্দ, এমন কিছু কথা আছে যাতে মিলনের আনন্দ দ্বিগুণ হয় বইকি। পরস্পরের ঘনিষ্ঠ হওয়ার চাবিকাঠি কিন্তু লুকিয়ে আপনার একটি শব্দ বা কথায়। সঙ্গমের মুহূর্তে কী ধরনের শব্দ বা কথা পার্টনারকে বেশি আকর্ষণ করে? চলুন জেনে নেওয়া যাক গবেষণা কী বলছে।

সসি ডেটস নামের একটি অনলাইন এজেন্সি ৫০২৪ জন ইউজারের উপর একটি সমীক্ষা করে। জিজ্ঞেস করা হয়েছিল, শৃঙ্গারের সময় তাঁরা কী ধরনের শব্দ বা কথা শুনতে ভালবাসেন। যাতে তাঁদের রাত হয়ে ওঠে আরও রঙিন। ৯০ শতাংশেরও বেশি পুরুষ জানান, হালকা গোঙানির শব্দই মিলনের সময় উত্তেজনা বাড়ায়। পার্টনার যে মিলনে আনন্দ পাচ্ছেন, তার বহিঃপ্রকাশ এভাবেই সবচেয়ে ভাল ব্যক্ত করা যায়। তবে এক্ষেত্রে মহিলাদের সংখ্যাটা খানিকটা কম। ৭৭.৬ শতাংশ মহিলা তাঁদের পার্টনার গোঙানি উপভোগ করেন।

৭৬.৮ শতাংশ পুরুষ আবার বলছেন, পার্টনারের থেকে ছোটখাটো দুষ্টুমির কথাবার্তা শুনলে ঘনিষ্ঠতা বাড়ে। ৭৩.৫ শতাংশ মহিলারও মত, দুষ্টু-মিষ্টি কথা পার্টনারের প্রতি আকর্ষণ বাড়িয়ে তোলে। তবে যৌনতার সময় সঠিক শব্দ মনে করে বলার কাজটা অনেকেরই পারেন না। আর যাঁরা পারেন, তাঁদের পার্টনার নিঃসন্দেহে যৌনতাকে গভীরভাবে উপভোগ করেন।

তবে শুধু কথাই নয়, গভীর-ভারী নিঃশ্বাস-প্রশ্বাসও মিলনে বড় ভূমিকা পালন করে। ৬০.১ পুরুষ ও ৪৫.৯ শতাংশ মহিলাদের মতে, কান বা ঠোঁটের মতো স্পর্শকাতর অঙ্গে গভীর শ্বাস-প্রশ্বাস রতিসুখকে দ্বিগুণ করে তোলে। এছাড়াও মিলনের যন্ত্রণার চিৎকার, ‘ওহ গড’-এর মতো শব্দগুলিতে শৃঙ্গারের গভীরতা গাঢ় হয়।

তবে এসবের পরও অনেক পুরুষ ও মহিলা একটি বিষয়ে একমত প্রকাশ করেছেন। তা হল, সঙ্গমের সময় গভীর নিস্তব্ধতা। কারণ জীবনের চরমসুখের সময় নিস্তব্ধতাও এক অন্য মাত্রা পায়। যা নিঃশব্দেই অনেক কিছু বলে দেয়। আর মিলনের সময় কোন কথা শুনলে সবচেয়ে খারাপ লাগে? সমীক্ষা জানাচ্ছে, অনেকেই পার্টনারের নাম ভুল বলেন। তাতেই মাটি হয় সমস্ত আনন্দ। এমন ভুলটি কিন্তু ভুল করেও করবেন না।

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *