গো*প*না*ঙ্গে যত্নে রেখেছেন মেসিকে! ভবিষ্যতের ‘গভীর’ পরিকল্পনায় বিভোর লাস্যময়ী মডেল

Share

বিশ্বকাপের ( FIFA World Cup 2022) কোয়ার্টার ফাইনালে (Quarter-Final) নেদারল্যান্ডসকে হারিয়ে শেষ চারে গিয়েছে আর্জেন্টিনা (Netherlands vs Argentina)। গোল করে ও করিয়ে ফের একবার মাঠে ম্যাজিক দেখিয়েছেন ‘ক্যাপ্টেন আর্জেন্টিনা’ লিওনেল মেসি (Lionel Messi)। ১৯৮৬ সালের পর আর্জেন্টিনা ফের একবার কাপ জিতবে মেসি অ্যান্ড কোং। এমনটাই স্বপ্ন দেখছে নীল-সাদা দেশ। স্বপ্ন দেখছেন মেসির এক ব্রাজিলিয়ান ডাই-হার্ড ফ্যানও, বলা ভালো সুপারফ্যান মিস বামবাম (Miss BumBum), ওরফে সুজি কোর্টেজ (Suzy Cortez)।

মেসিকে ভালোবেসে গোপনাঙ্গে খোদাই করেছেন আর্জেন্টাইন কিংবদন্তির মুখ। তবে মেসির সম্মানে শরীরে আরও বেশি করে ট্যাটু করানোর পরিকল্পনা করেছেন তিনি। সাতবারের ব্য়ালন ডি’অর জয়ী মেসির সম্মানে সারা শরীরে সাতটি ট্যাটু করিয়েছেন মিস বামবাম। সুজি পেশায় মডেল, টিভি সঞ্চালিকা ও ব্য়বসায়ী। তাঁর ইনস্টাগ্রামে চোখ রাখলেই দেখা যাবে যে, মেসিকে নিয়ে কোন পর্যায়ে তিনি উন্মাদনা করেন।

একটি ব্রিটিশ ট্যাবলয়েডে দেওয়া সাক্ষাৎকারে সুজি বলছেন, ‘মেসির সম্মানে মোট সাতটি ট্যাটু করিয়েছি শরীরে। আমি গোপনাঙ্গে ট্যাটু করিয়ে গিনেস রেকর্ডে নিজের নাম তুলেছি। আমি যখন ওই জায়গায় ট্যাটু করি, তখন অনেকেই চমকে গিয়েছিল। কিন্তু আমি বুঝেছিলাম ওই ট্যাটুর মানে। মেসির পায়ের ওই বিখ্যাত ট্যাটুর সঙ্গেই এবার নম্বর দশ লেখা ট্যাটুটিও করাতে চাই।’ মেসির কাফ মাসলে যে ট্যাটু রয়েছে তা সারা বিশ্বের মন কেড়ে নিয়েছে। সেখানে তাঁর ছেলে থিয়াগোর হাতের নকশা ছিল। এরপর তিনি সেখানে ধাপে ধাপে একগুচ্ছ ফুল, তরোয়াল ও ১০ নম্বর খোদাই করান।

২০১৪ বিশ্বকাপে মেসি ট্রফির অত্যন্ত কাছে এসেও ছুঁয়ে দেখতে পারেননি। জার্মানি ১-০ গোলে আর্জেন্টিনাকে হারিয়ে চতুর্থবারের জন্য বিশ্বচ্যাম্পিয়ন হয়েছিল। মেসি বিশ্বকাপে নামার আগেই বলেছিলেন,’কাতার বিশ্বকাপই আমার শেষ, নিশ্চিত ভাবে এটা বলতে পারি। এই সিদ্ধান্ত আমি আগেই নিয়ে ফেলেছিলাম।’ চলতি বিশ্বকাপে মেসি আছেন আগুনে ফর্মে। চার ম্যাচে তিন গোল করেছেন ও করিয়েছেন এক গোল। আর্জেন্টিনা কাতারের অভিযান শুরু করেই মুখ থুবড়ে পড়েছিল। সৌদি আরব ২-১ হারিয়ে দেয় লা আলবিসেলেস্তেদের। তবে এরপরেই আর্জেন্টিনা ১৮০ ডিগ্রি ঘুরে গিয়ে আগুনে ফুটবল খেলতে শুরু করে সব হিসেব বদলে দিয়েছে। প্রথম ম্যাচ হারা মেসি অ্যান্ড কোং এখন চলে গিয়েছে সেমিফাইনালে। আগামী ১৪ ডিসেম্বর ক্রোয়েশিয়াকে হারাতে পারলেই মেসিরা চলে যাবেন ফাইনাল ল্যাপে।

 

You may also like...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *